আবারও বৃষ্টির সেই দিনটি...

Trending

Trending

Category

আবারও বৃষ্টির সেই দিনটি.

আজ ও বৃষ্টি হচ্ছে..
সকাল থেকে প্রচুর মাথা ব্যাথা,ঘুমও ধরছে না।
মাথাটা ভারী হয়ে আছে,চিন্তাগুলো এলোমেলো হয়ে আছে.আমি যেন অনেকটা ঘোরে রয়েছি..

আজ আকাশটা কালো মেঘে ঢেকে গেছে,মুশুল ধারে বৃষ্টি হচ্ছে...অবিরাম বৃষ্টির ধারা বইছে,মনটাও ভালো নেই।
বৃষ্টিতে ভিজব ভাবতেছি..কিন্তু জ্বর আসতে পারে সেই ভয় টাও মনে আঘাত হানছে।
কাল সারা রাত ঘুম হয় নি,অনেক ধরনের চিন্তা আর স্মৃতি মাথায় ঘোরপাক খাচ্ছিলো..হতাশা আর অস্থিরতা হ্রাস করছিল আমাকে..ঘুমের ঔষদ খেয়েছি তাও কাজ হচ্ছিল না,প্রচুর মাথা ব্যাথা যা সহ্যের সীমা অতিক্রম করছিল..চোখ লাল হয়ে গিয়েছিল,জ্বর ও আসছিল...

অবশেষে রাতের শেষ প্রহরে কখন যেন চোখের পাতায় ঘুম চলে আসে বলতে ই পারি নি।আজ সকাল থেকে বিকাল অবধি বাসাতেই,বের ও হই নি একটুও..

আজ বৃষ্টির সাথে পরিবেশটা অন্যরকম।
যেনো আমার মত বৃষ্টির মন টাও মনে হয় আজ ভালো নেই।সকাল থেকে ফোনে রিং বাজছে একটা ফোন পিক আপ করি নাই।সকাল থেকে বেলায়েত, সাহিব ফোন দিচ্ছে।ফোন ধরার কোনো ইচ্ছে হচ্ছে না।

আজ ওয়াসি এর জন্মদিন,কিন্তু যার জন্মদিন সেই তো এই পৃথিবীতে নেই।আজ খুব বেশি ওয়াসিকে মনে পরছে ওর স্মৃতিগুলো আমাকে আরও বেশি কাতর করে তুলছে...

মনে আছে সেই করমচা গাছটির কথা। সেখানে একটি বেন্চ পাতা থাকত এখনও আছে কিনা জানা নেই...
সেখানে দুই বন্ধু মিলে আমরা কত ই আড্ডা দিতাম স্মৃতিগুলো এখনো মতিস্কে আঘাত হানে।
সেই স্মৃতিগুলো এখনো জীবন্ত রয়েছে শুধু নেই ওয়াসি। সবই আগের মত আছে,,শুধু ব্রেস্ট ফ্রেন্ড টাই নেই।
দেড় বছর আগে রোড অ্যাকসিডেন্ট এ ওয়াসি মারা যায়।বাস্তবতায় এখন ওর কোনো অস্তিত্ব নেই...
এখন আর এই রিহানকে গাধা,হারামি বলে ডাকার মানুষটি নেই,নেই আমার জন্মদিনে প্রথম উইশ করার মানুষটি..
ও যেদিন মারা যায় সেইদিন ও খুব বৃষ্টি ছিল আজও বৃষ্টি হচ্ছে।অবশেষে চিন্তাগুলোকে ঝেড়ে ফেলে বৃষ্টিতে ভিজলাম।খোলা মাঠে দাড়িয়ে আছি, মনে হচ্ছে পিছন থেকে কেউ ডাকছে..
কন্ঠটা মনে হয় ওয়াসির ই।
কিন্তু বাস্তবে তা কখনই সম্ভব নয়।
দেড় ঘন্টা বৃষ্টিতে ভেজার পর এলাকার ছোট চায়ের দোকানে একটি সিগারেট ধরিয়ে এক কাপ ধুমায়িত চা খেয়ে বাসায় আসলাম।
বাসায় এসে শরীর মুছতেই বুঝতে পারলাম।
জ্বর এসেছে, শ্বাস দ্রুত হচ্ছে, শরীরের তাপমাত্রাও বেড়ে গেছে.....
বিছানায় শুয়ে লাইট অফ করলাম,ইতিমধ্যে শরীরে কাপুনি শুরু হয়ে গেছে...কথায় জড়তা, গলা শুকিয়ে যাচ্ছে,ঢোক গিলতে কষ্ট হচ্ছে..শ্বাস কষ্টও হচ্ছে..
হঠাৎ বুঝতে পারলাম আমার দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে গেছে...
তখন বুঝতে পারলাম আমার অন্ধকার রুমে কেউ এসে আমার পাছে বসল..ঠিক দেখতে পাচ্ছি না,কিন্তু বুঝতে পারলাম এটা ওয়াসি। কিন্তু ওর তো এখানে থাকাটা বাস্তবতার বিপরীত।
আমি যে ওকেই দেখছি...
হঠাৎ মনে হলো ওর আমার হাত ধরলো এবং বলল রিহান দোস্ত আমি অনেক ভাল আছি ওপারে শুধু তোকে অনেক মিস করি,আমার বলতে ইচ্ছা করছিল পাগলি আমিও তোকে অনেক মিস করি রে..বলার কোনো শক্তি পাচ্ছিলাম না।
ও আবার বলল দোস্ত নিজের লাইফটা কে একটু গোছায় নে,আমি সব সময়ই তোর পাশে আছি...
আরও কিছু হয়ত বলতো তখনই ঘোর টা কেটে গেল।
বুঝলাম সবই আমার কল্পনা....!!

( সংক্ষিপ্ত ও গল্পের কিছু অংশ)

SHARE:

COMMENTS