ছেলেটা শিউলী ভালবাসতো

Trending

Trending

Category

ছেলেটা শিউলী ভালবাসতো

ছেলেটা ভাল গান গাইতো। একটা সময় ভোর হলেই ছেলেটার ঘর থেকে রেওয়াজের আওয়াজ পেতাম।
তারপর?
তারপর আর কি ছেলেটা শিউলী ভালবাসতো। ছেলেটার ঘরের সাথে লাগোয়া যে বারান্দাটা ছিল? তার গা ঘেষে হেসে খেলে বড় হচ্ছিলো একটা শিউলীর চারা।
ছেলেটা বাসে চড়ে কলেজ যেতো। সন্ধ্যা হলে আড্ডা জমিয়ে দিতো গানের সুরে।
তারপর?

তারপর আর কি! শিউলীর চারা রীতিমতো গাছ হয়ে উঠলো! শরতের আকাশ জোড়া নীল ছাওনীতে উঠোন ভরা সাদা শিউলী।

তারপর?

তারপর ছেলেটা ভালবাসতো গোলাপ! ওর বাড়ির পাশেই কৃষ্ণচূড়ার চারা! সে বাড়িতেই থাকতো বৃষ্টির নামের মেয়েটি! যাকে প্রথম দেখেছিলো ওইযে বাস ধরার জায়গাটাতে?
তারপর ঠিক মাঝবরাবর যে তীরটা বাধলো বুকের ভেতর? তাকে আমরা দিনশেষে নাম দিই ভালোলাগা!
অনেকগুলো ভারী মেঘবর্ষণের পরে খানিকটা গলে ছিলো বৃষ্টি!

তারপর?

তারপর শুরু হলো আদুরে প্রেম। কৃষ্ণচূড়া আর শিউলী কেমন যেন একই বন্ধনে একটু একটু করে বেড়ে উঠলো।

পাশাপাশি কেটে গেলে সাড়ে ছ'বছর! তারপর এক ঘুটঘুটে সন্ধ্যায় নিমিষে পর হয়ে গেল কৃষ্ণচূড়া আর বৃষ্টি! সাথে?
সাথে শিউলী আর সেইযে প্রিয় চেনা ছেলেটা? যে ছেলেটা গান ভালবাসতো? যে ছেলেটা গোলাপ ভালবাসতো?

ওইযে যে ছেলেটার ঘর থেকে ভোর হতো গানের সুরে সেই ছেলেটা ছন্নছাড়া হলো!
কিশোরবেলায় যে ছেলেটা শেখেনি দু আঙুলে কিভাবে লোকে সিগারেট লুকায়, সে ছেলেটা ঠোঁট পোড়ালো নিকোটিনে!

 

বন্ধুরা বলেছিলো একবার ছুয়ে দেখ দেখবি ধোঁয়ায় ধোঁয়ায় মিশে যাবে সব কষ্ট!

তারপর?

সেই থেকে শিউলীর শিঁকড়ে নিকোটিনের ছাই!!
সেই থেকে ভোর হলে দমবন্ধ করা নিকোটিনের গন্ধ আসে সে ঘর থেকে!!

ছেলেটা ভুলতে থাকে সুর, তাল!
ছেলেটা ভুলতে থাকে প্রিয়জন মানে প্রিয়'জনেরা!! সে ভুলতে থাকে মায়ের চোখদুটো, ভুলতে থাকে আদুরে বোনটার অবয়ব! ভুলে যায় বাবার শাসন!

কে বলে সব ছেলে শখ করে ঠোঁট পোড়ায়?
কেউ কেউ ছুঁয়ে যাওয়া ঠোঁট ভুলতেও ঠোঁট পোড়ায় বিশ্বাস করো যেই ছেলেটাও শিউলী ভালবাসতো, সেই ছেলেটাও এখন রোজ রোজ ঠোঁট পুড়িয়ে ছাঁই জমিয়ে রাখে।

SHARE:

COMMENTS